সর্বস্থরের মানুষের সাথে মিশে গিয়েছিলেন ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া

আবদুল আউয়াল জনি, সিটিজি ভয়েস টিভি:

ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, এই নামটিই যথেষ্ট আর কোন বিশেষন জানাতে হয়না সবাই চিনে নিতে পারে কারণ তিনি প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ও বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের উপ-দপ্তর সম্পাদক। এছাড়াও আরো একটি কারণে সবাই উনাকে নাম বললেই চিনতে পারে সেটা হল স্বাধীন বাংলাদেশে বাঙালি বৌদ্ধদের মধ্যে সর্বপ্রথম এবং একমাত্র ব্রিটিশ কোয়ালিফাইড ব্যারিস্টার তিনি। 

প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী ও বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের উপ-দপ্তর সম্পাদকের মত বড় গুরুদায়ীত্বের মাঝে থেকেও মনথেকে চাইলে সর্বসাধারণের সাথে মিশতে যে সমস্যা হয়না সেটার নজির বাংলাদেশের খুব কম সংখ্যক ব্যাক্তির রয়েছে।

ঈদুল ফিতরের ২য় দিন তিনি এসেছিলেন তার নিজগ্রাম চট্টগ্রামের লোহাগাড়ার বড়হাতিয়া গ্রামে এবং যেখানে তিনি বেড়ে উঠেছিলেন সাতকানিয়া উপজেলার সর্বস্থরের মানুষের কাছে, সারাদিন ব্যাপী তিনি সাতকানিয়া এবং লোহাগাড়া দুই উপজেলার রাজনৈতিক নেতাকর্মীদের পাশাপাশি, সাধারন মানুষ, রিক্সাওয়ালা, চা-দোকানি, বাস চালক ও শ্রমিকরা সহ সর্বস্থরের মানুষের সাথে ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময় করেন এবং সকলের কথা শুনেন। ঈদ শুভেচ্ছা বিনিময়কালে মনে হচ্ছিল তিনি যেন রিক্সাওয়ালা, চা-দোকানি, বাস চালক ও শ্রমিকদের মতই সাধারণ একজন মানুষ, এমনভাবেই তিনি সর্বস্থরের মানুষের সাথে মিশে গিয়েছিলেন।

প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারীকে রিক্সাওয়ালা, চা-দোকানি, বাস চালক ও শ্রমিকরা সহ সর্বস্থরের মানুষের মাঝে উচ্ছাস জেগে উঠে, অনেককে বলতে শুনা যায় উনার নেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যেমন সুযোগ পেলে কোন ভেদাভেদ না রেখে সবার সাথে মিশে যান তিনিও দেখছি তেমন, প্রধানমন্ত্রী যোগ্য ব্যাক্তিকেই উনার বিশেষ সহকারী নিয়োগ দিয়েছেন।

এসময় উপস্থিত ছিলেন দক্ষিন জেলা আওয়ামীলীগের যুব ক্রিড়া বিষয়ক সম্পাদক গোলাম ফারুক ডলার, সাতকানিয়া উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি এম এ মোতালেব সিআইপি, সহ-সভাপতি মাস্টার ফরিদুল আলম, সাধারণ সম্পাদক কুতুব উদ্দিন চৌধুরী, সাংগঠনিক সম্পাদক মোহাম্মদ শাহজাহান, সাতকানিয়া পৌর মেয়র মোহাম্মদ জোবায়ের, লোহাগাড়া উপজেলা চেয়ারম্যান জিয়াউল হক চৌধুরী বাবুল, লোহাগাড়া উপজেলা আওয়ামীলীগ সাধারণ সম্পাদক সালাউদ্দিন হীরু, বড়হাতিয়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ সভাপতি সাজেদুর রহমান দুলাল, সাধারণ সম্পাদক রিটন বড়ুয়া রোনা, আমিরাবাদ ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান প্রার্থী শাহেদুল কবির সেলিম, শ্রমিক নেতা আরিফুর রহমান সহ আওয়ামীলীগ ও অঙ্গ-সংগঠনের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও সাতকানিয়া-লোহাগাড়ার বিভিন্ন ইউনিয়নের ইউপি চেয়ারম্যানবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

শুভেচ্ছা বিনিময় কালে ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া বলেন, বঙ্গবন্ধু কন্যার কারণেই বাংলাদেশ আজ উন্নয়নের রোল মডেল হয়েছে। অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়ার জন্য আওয়ামীলীগের প্রতিটি নেতাকর্মী সহ সবাইকে এক কাতারে দাঁড়িয়ে মানুষের কল্যাণে কাজ করতে হবে। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রতিটি সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের জন্য সবাইকে এক হয়ে কাজ করতে হবে তাহলেই বাংলাদেশ সোনার বাংলায় রুপান্তরিত হবে।

এসময় তিনি কয়েকটি ধর্মীয় প্রতিষ্টানে ব্যক্তিগত অনুদান হিসেবে নগদ অর্থ প্রদান করেন এবং এগিয়ে চলো চট্টগ্রাম টিমের পক্ষথেকে প্রতিবন্দীদের মাঝে হুইলচেয়ার বিতরণ করেন।

মতামত