১০ টাকার চাল বেশি দামে বিক্রির অভিযোগে নরসিংদীতে মহিলা ইউপি সদস্য গ্রেফতার

মোঃ আল আমিন, নরসিংদী প্রতিনিধি:


নরসিংদী মডেল থানাধীন নজরপুর ইউনিয়নের ৪, ৫ ও ৬নং ওয়ার্ডের সংরক্ষিত মহিলা ইউপি সদস্য শাহানাজ বেগম অসৎ উদ্দেশ্যে তার শ্বশুড় ও স্বামী সিরাজুল ইসলামের নামে সরকারী অনুদান দেয়া খাদ্য বান্ধব কর্মসূচীর সুলভ মূল্য (ওএমএস) কার্ড ক্রয় এবং প্রায়ই অধিক হারে ওএমএস এর চাউল সংগ্রহ করে মজুদ করে এবং মাঝে মাঝে কালো বাজারির মাধ্যমে অধিক লাভে বিক্রয় করে।

১৯ এপ্রিল রোববার একই উপায়ে আসামী শাহানাজ বেগম (৪০) ও তার স্বামী-সিরাজুল ইসলাম (৪৮), সাং-দিলারপুর, থানা ও জেলা-নরসিংদী একই গ্রামের নূরুন্নবী (২২), পিতা-বাচ্চু মিয়া এর নিকট ওএমএস কার্ডের ১০ টাকা মূল্যের চাউল অধিক মুনাফায় বিক্রি করে। উক্ত বিষয়টি জানতে পেরে জরুরি সেবা সার্ভিস ৯৯৯ এ কল দিলে নরসিংদী মডেল থানা পুলিশ ১৯/০৪/২০২০খ্রিঃ তারিখ সকাল অনুমান ১১.০০ ঘটিকার সময় দিলারপুর বাজার আব্দুল্লাহ আল বাছির মেডিকেল হল (ঔষধের দোকান) এর সামনে রাস্তার উপর ১টি বস্তার মধ্যে ২৬ কেজি চাউল-সহ নূরুন্নবীকে পেয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করলে জানা যায়, আসামী শাহানাজ বেগম ও তার স্বামী সিরাজুল ইসলাম পরস্পর যোগসাজসে ১০ টাকা মূল্যের চাউল তার নিকট ২০ টাকা মূল্যে বিক্রি করে। উক্ত চাউলের বস্তার গায়ে খাদ্য অধিদপ্তরের স্টীকার ছাপানো এবং বস্তার গায়ে খাদ্য অধিদপ্তর নেট ওজন ৩০ কেজি, ০৫/২০১৯-০১/০২ লেখা আছে।

নরসিংদী মডেল থানা পুলিশ দিলারপুর বাজার হতে চাউল জব্দ করেন এবং চাউলসহ শাহানাজ বেগমকে গ্রেফতার করেন। শাহানাজ বেগম এর স্বামী সিরাজুল ইসলাম পলাতক আছে। আসামী শাহানাজ বেগম ও তার স্বামী সিরাজুল ইসলাম পরস্পর যোগসাজসে প্রায়ই সরকারী অনুদানের ওএমএস এর চাউল মজুদ রেখে অসৎ উদ্দেশ্যে কালা বাজারির মাধ্যমে অধিক লাভে বিক্রয় করতো বলে সুত্র জানায়।

এ বিষয়ে আজ ২০ শে এপ্রিল সকালে নরসিংদী মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোঃ সৈয়দুজ্জামান জানান, উক্ত আসামীর বিরুদ্ধে নরসিংদী মডেল থানায় নিয়মিত মামলা রুজু করা হয়েছে।

মতামত