লোহাগাড়ার আমিরাবাদে ‘দশে মিলে করি কাজ’র উদ্যোগে ৪র্থ পর্যায়ে ইফতার সামগ্রী বিতরণ

সিটিজি ভয়েস টিভি ডেস্ক:

বিশ্বব্যাপী মরণব্যাধি করোনা ভাইরাসের কারণে নিজ ঘরে আটকে পড়া কর্মহীন শ্রমজীবী খেটে খাওয়া হতদরিদ্র মধ্যবিত্ত মানুষ এখন গৃহবন্দি। কাজ করতে না পেরে অনেকে এখন মানবেতর দিনাতিপাত করছে। জাতীর এই ক্লান্তিকালে অসহায় হতদরিদ্র মধ্যবিত্ত মানুষের পাশে দাঁড়ালেন লোহাগাড়া উপজেলার আমিরাবাদ মল্লিক ছোবহান হাজির পাড়া গ্রামের অন্যতম সামাজিক সংগঠন ‘দশে মিলে করি কাজ’ এর সদস্যবৃন্দ।

বৃহস্পতিবার (৩০ এপ্রিল) দুপুরে সামাজিক দূরত্বের বিষয়টি মাথায় রেখে জনসমাগম এড়িয়ে কোন ধরণের আনুষ্ঠানিকতা ছাড়াই ইফতারী ও সেহেরীর উপহার সামগ্রী সংগঠনের সদস্যরা অসহায় ও মধ্যবিত্তের ঘরে ঘরে পৌঁছে দেন। আর দেশের এ সংকটময় মুহুর্তে পবিত্র রমজানের ইফতার ও সেহেরীর উপহার সামগ্রী হাতে পেয়ে মহাখুশী এসব কর্মহীন, শ্রমজীবী ও মধ্যবিত্ত মানুষ। উপহার সামগ্রীর মধ্যে রয়েছে চাউল, ভোজ্য তৈল, পিয়াজ, চনা, চিড়া, লবণ, চিনি, সেমাই, খেজুর, মুড়ি, আলু, ডালসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিস।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা বিশিষ্ট সাংবাদিক এম. সাইফুল্লাহ চৌধুরী, মো. আবদুল বাকী চৌধুরী, মো. জাহাঙ্গীর চৌধুরী, সাবেক ছাত্রনেতা মো. রাশেদ হোছাইন, মো. সেলিম উদ্দিন, সাবেক ছাত্রনেতা মো. শাহেদ, মো. আবু বকর ছিদ্দিক রুবেল, মো. আরিফুল ইসলাম ফয়সাল, মো. হাসান চৌধুরী, মো. মহসিন চৌধুরী, মো. মোকতাদির হোসেন মহিন, মো. আবু বকর গালিব।

উপহার সামগ্রী বিতরণকালে সংগঠনের প্রতিষ্ঠাতা বিশিষ্ট সাংবাদিক এম. সাইফুল্লাহ চৌধুরী বলেন, বিশ্বব্যাপী করোনার ভয়াবহতা দিন দিন বেড়েই চলেছে। আমাদের দেশেও মরণঘাতি করোনার আক্রমণ বাড়ছে। এই ভয়াবহ পরিস্থিতি থেকে উত্তরণের জন্য সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে সরকারের নির্দেশিত স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। করোনার দূর্যোগে সরকারের পাশাপাশি এই সংগঠন ৪র্থ পর্যায়ে ৭০টি অসহায় পরিবারের পাশে দাঁড়াতে পেরে মহান আল্লাহর দরবারে শুকরিয়া আদায় করছি। আর এই সময়ে সরকারের পাশাপাশি এলাকার বিত্তবানদের এগিয়ে আসার আহবান জানান। তিনি আরো বলেন, এই উপহার সামগ্রী দেওয়ার মালিক আল্লাহ, আমরা শুধু উচিলা। যতোদিন করোনা ভাইরাসের মহামারী থাকবে ততোদিন আমরা পর্যায়ক্রমে উপহার সামগ্রী দেয়ার চেষ্টা করব। পরিশেষে বিশ্বের এই ক্রান্তিলগ্নে দেশ-বিদেশ থেকে আমার আহবানে সাড়া দিয়ে যারা অর্থ শ্রম, পরামর্শ ও উৎসাহ দিয়ে সহযোগিতা করেছেন তাদের নাম দিয়ে ছোট না করে মহান আল্লাহর দরবারে তাদের সুস্থতা কামনা করছি। আমি আশা করি ভবিষ্যতেও যে কোন জনকল্যাণমূলক কাজে সাড়া দিবেন। আর সারা বিশ্বে যারা করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে তাদের সুস্থতা ও যারা ইতোমধ্যে শহীদ হয়েছেন তাদের আত্মার মাগফেরাত কামনা করছি।

মতামত