৪ নম্বর হুঁশিয়ারি সংকেত পরিবর্ত, ৭ নম্বর মহাবিপদ সংকেত দিলেন আবহাওয়া অধিদপ্তর

সিটিজি ভয়েস টিভি ডেস্ক:

বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত অতিপ্রবল ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হয়েছে ‘আম্পান’।এর প্রভাবে সমুদ্র উত্তাল হয়ে উঠায় চট্টগ্রাম, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দর এবং কক্সবাজার সৈকত এলাকাকে ৭ নম্বর মহাবিপদ সংকেত দেখিয়ে যেতে বলেছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

আবহওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, ঘূর্ণিঝড় ‘আম্পান’ বর্তমানে পশ্চিম মধ্য বঙ্গোপসাগর এবং তৎসংলগ্ন দক্ষিণ বঙ্গোপসাগর এলাকায় অবস্থান করছে।

আবহাওয়াবিদ রাশেদুর জামান বলেন,বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত গভীর নিন্মচাপটি সামান্য উত্তরপশ্চিম দিকে অগ্রসর হয়ে ঘূর্ণিঝড়ে পরিণত হয়েছে। আম্পান নামের ঘূর্ণিঝড়টি আরও ঘনীভূত হয়ে উত্তর-উত্তর পশ্চিম দিকে আগ্রসর হতে পারে।

ঠিক কোথায় ঘূর্ণিঝড়টি আঘাত হানবে তা নিশ্চিত করে বলতে না পারলেও আবহওয়াবিদরা ধারণা করছেন, বর্তমানে যেভাবে ‘আম্পান’ এগোচ্ছে, তাতে মঙ্গলবার রাতে বা বুধবার ভারতের পশ্চিমবঙ্গ ঘেঁষে বাংলাদেশের দক্ষিণাঞ্চলে ছোবল দিতে পারে।

ভারতীয় আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে, দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরের কেন্দ্রীয় অংশগুলিতে অত্যন্ত তীব্র আকার নিয়েছে ঘূর্ণিঝড় ‘আম্পান’। গত ছয় ঘণ্টার মধ্যে ১৩ কিলোমিটার বেগে সেটি উত্তর-উত্তর-পূর্বের দিকে ধেয়ে যাচ্ছে, অত্যন্ত তীব্র এই ঘূর্ণিঝড়টি ক্রমশই আরো শক্তিশালী হয়ে উঠছে।

আগামী ছয় ঘণ্টার মধ্যে এই ঝড়টি আরও তীব্র হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। এই ঘূর্ণিঝড়টি সম্ভবত উত্তর ও উত্তর-পূর্ব দিকে অগ্রসর হয়ে উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর এবং পশ্চিমবঙ্গের উপর দিয়ে বয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা।

এটি মূলত আগামী ২০ মে বিকেল নাগাদ পশ্চিমবঙ্গের দিঘা উপকূল ও বাংলাদেশের হাতিয়া দ্বীপপুঞ্জের উপর দিয়ে আছড়ে পড়তে পারে।

এদিকে বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তর সর্বশেষ বুলেটিনে জানিয়েছে, ‘সোমবার সকাল থেকে গভীর নিম্নচাপটি দক্ষিণ–পূর্ব ও দক্ষিণ–পশ্চিম বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছিল। এ সময় এটি চট্টগ্রাম সমুদ্রবন্দর থেকে ১ হাজার ১৫০ কিলোমিটার দক্ষিণ-দক্ষিণ পশ্চিমে, কক্সবাজার থেকে ১ হাজার ৯০ কিলোমিটার দক্ষিণ দক্ষিণ–পশ্চিমে, মোংলা সমুদ্রবন্দর থেকে ১ হাজার ৭০ কিলোমিটার দক্ষিণ দক্ষিণ–পশ্চিমে এবং পায়রা সমুদ্রবন্দর থেকে ১ হাজার ৫০ কিলোমিটার দক্ষিণ দক্ষিণ–পশ্চিমে অবস্থান করছিল।

এমন অবস্থায় পূর্ব সতর্কতা হিসেবে চট্টগ্রাম, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দর ও কক্সবাজার সৈকত এলাকাকে ৪ নম্বর হুঁশিয়ারি সংকেত নামিয়ে ৭ নম্বর মহাবিপদ সংকেত দেখিয়ে যেতে বলেছে আবহাওয়া অধিদপ্তর।

পাশাপাশি উত্তর বঙ্গোপসাগর ও গভীর সাগরে অবস্থানরত সব মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে উপকূলের কাছাকাছি থেকে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে। গভীর সাগরে না যেতে বলা হয়েছে।

মতামত