সুপার ঘুর্ণিঝড় আম্পান কাল বিকেলের পর আঘাত হানতে পারে

সিটিজি ভয়েস টিভি ডেস্ক:

সুপার ঘূর্ণিঝড় আম্পান বাড়তি শক্তি সঞ্চয় করে উপকূলে ধেয়ে আসছে। আগামীকাল বিকেলের পর এটি বাংলাদেশ উপকূল পেরুতে পারে। আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, উপকূল ও চরের নিম্নাঞ্চলে ৫-১০ ফুট উঁচু জলোচ্ছ্বাসের শঙ্কা রয়েছে। স্থানীয় প্রশাসন বলছে, এরইমধ্যে উপকূলীয় অঞ্চলে সব ধরনের প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। উদ্ধার অভিযান ও ত্রান সহায়তার জন্য প্রস্তুতি আছে সেনা, নৌবাহিনী, পুলিশ ও কোস্টগার্ডের।

করোনা মহামারির মধ্যেই ঘুর্ণিঝড়ের হুশিয়ারি। বাড়তি শক্তি সঞ্চয় করে উপকূলের দিকে ধেয়ে আসছে সুপার সাইক্লোন আম্পান। আবহাওয়া অধিদপ্তর বলছে, বুধবার বিকেলের পর এটি অতিক্রম করতে পারে বাংলাদেশ উপকূল।

ঘুর্ণিঝড়ের প্রভাবে একটু একটু করে উত্তাল হচ্ছে বঙ্গোপসাগর উপকূল। উপকূলীয় এলাকার কোথাও কোথাও হচ্ছে মাঝারি থেকে ভাড়ি বৃষ্টিপাত।

আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, ঘন্টায় গড়ে ২০ কিলোমিটার গতিতে উপকূলের দিকে এগিয়ে আসছে ঘূর্ণিঝড়টি। বর্তমানে যে শক্তি আছে তার কাছাকাছি শক্তি নিয়ে বাংলাদেশ উপকূলে আঘান হানতে পারে আম্পান।

ঘূর্ণিঝড়ের সময় উপকূলীয় জেলাগুলোতে ভারি থেকে অতি ভারি বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। আঘাত হানার সময় উপকূলীয় এলাকায় ৫-১০ ফুট উঁচু জলোচ্ছ্বাসের শঙ্কা রয়েছে।

আম্পানের ক্ষতি মোকাবেলায় এরইমধ্যে উপকূলীয় অঞ্চলে সব ধরনের প্রস্তুতি নেয়া হয়েছে। মাইকিং করে ঝুঁকিপূর্ণ এলাকার বাসিন্দাদের নিরাপদ আশ্রয়ে যেতে বলা হচ্ছে। ক্ষয়ক্ষতি মোকাবেলায় ও স্থানীয়দের সহায়তায় সাইক্লোন শেল্টার, মেডিকেল টিম ও পর্যাপ্ত খাবার মজুদ রয়েছে।

দুর্যোগ মোকাবেলার সাথে জড়িত সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের প্রয়োজনীয় নির্দেশনা দেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী।

এ শতাব্দিতে বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট হওয়া প্রথম সুপার সাইক্লোন এটি।

মতামত