স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত পরিসরে গণপরিবহণ চালুর সিদ্ধান্ত

চলবে বাস, রেল, লঞ্চসহ সব রকমের গণপরিবহণ।

সিটিজি ভয়েস টিভি ডেস্ক:

সীমিত আকারে স্বল্পসংখ্যক যাত্রী নিয়ে ৩১শে মে থেকে চালু হচ্ছে বাস, রেল, লঞ্চসহ সব রকমের গণপরিবহণ। বুধবার (২৭ মে) রাত ৮টার দিকে গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন। তবে, স্বাস্থ্যবিধি কঠোরভাবে মানতে হবে বলেও জানিয়েছেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী।

তিনি জানান, শুরুতে গণপরিবহণ বন্ধ রাখার ঘোষণা দেয়া হলেও প্রধানমন্ত্রী নির্দেশনা অনুযায়ী সীমিত আকারে স্বল্পসংখ্যক যাত্রী নিয়ে স্বাস্থ্যবিধি মেনে গণপরিবহণ চালুর সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। তবে, এক জেলা থেকে অন্য জেলায় যাত্রী পরিবহণে নিষেধাজ্ঞা বলবৎ থাকবে। প্রতিটি জেলার প্রবেশ ও বের হওয়ার পথে চেকপোস্টের ব্যবস্থা থাকবে।

একই সঙ্গে, আগের নিয়ম অনুযায়ী রাত ৮টা থেকে সকাল ৬টা পর্যন্ত মানুষের চলাচলে নিষেধাজ্ঞা বহাল থাকবে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে হাট-বাজার ও সব রকমের দোকানপাট সকাল ১০টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত খোলা থাকবে বলেও জানান প্রতিমন্ত্রী।

এর আগে, করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে সাধারণ ছুটি আর না বাড়ানোর ঘোষণা দেয়া হয়। জানানো হয় ৩১শে মে থেকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে খোলা থাকবে অফিস আদালত। তবে, অসুস্থ, বয়স্ক ব্যক্তি ও সন্তান সম্ভবাদের আপাতত কাজে যোগ দিতে হবে না বলে জানান জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন। সবকিছু সীমিত আকারে খুললেও ১৫ই জুন পর্যন্ত বন্ধ থাকছে দেশের সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। তবে, প্রতিষ্ঠান চাইলে অনলাইন ও ডিজিটাল তথ্য প্রযুক্তির মাধ্যমে ক্লাস নিতে পারবে।

এ সংক্রান্ত বিষয়ে বৃহস্পতিবার প্রজ্ঞাপন জারি করা হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ইতিমধ্যে প্রজ্ঞাপনে স্বাক্ষর করেছেন বলেও জানিয়েছেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী।

দেশে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রোধে গত ২৬শে মার্চ থেকে শুরু হয় সাধারণ ছুটি। এরপর সাত দফায় বাড়ানো হয় সাধারণ ছুটি। ৬৬ দিনের সাধারণ ছুটির মেয়াদ শেষ হচ্ছে ৩০ মে।

মতামত