হাজার উপকারে কাঠ বাদাম খান প্রতিদিন সকালে, পরিবর্তন দেখুন নিজেই

সিটিজি ভয়েস টিভি ডেস্ক:


প্রচুর পরিমাণ নিউট্রিশনে ভরপুর ছোট একটা খাবার, কিন্তু এত গুণ! বলছি কাঠ বাদামের গুণের কথা। এই এক বাদাম আপনাকে যে পরিমাণ উপকার করবে জানলে অবাক হবেন আপনি। প্রচুর পরিমাণ নিউট্রিশনে ভরপুর এই কাঠ বাদাম আপনাকে করে তুলতে পারে লাবণ্যময়ী। এছাড়া কাঠ মাদামে রয়েছে প্রচুর ভিটামিন ও পটাশিয়াম। প্রতিদিন সকালে দুটো করে কাঠ বাদাম যদি নাস্তার তালিকায় রাখেন, ফলাফল আপনি নিজেই পাবেন।

• কাঠ বাদামের সবথেকে শক্তিশালী গুণ হল, মস্তিষ্ককে সুস্থ রাখতেও এটি দক্ষ। ভিটামিন ই এবং পটাশিয়াম থাকার ফলে স্মৃতিশক্তি বৃদ্ধি করে কাঠ বাদাম।

• সকাল বেলা উঠেই দুটো কাঠ বাদাম খেয়ে নিলেই তরতাজা থাকা যায়। এনার্জি লেভেল ঠিক রাখতে রোজ কাঠ বাদাম খাওয়া উচিত।

• ভিটামিন ই, এ, বি১, বি৬ থাকার ফলে চুলও ভাল রাখে কাঠ বাদাম। ম্যাগনেশিয়ামের জন্য চুল গোড়া থেকে সুস্থ থাকে ও তাড়াতাড়ি বাড়ে।

•খিদে পেলে অল্প করে কাঠ বাদাম খেয়ে নিন। এতে খিদে যাবে। কিন্তু ওজনও থাকবে নিয়ন্ত্রণেই। প্রোটিন যুক্ত এই বাদাম খেলে সুগার লেভেলও ঠিক থাকবে। তাই মাত্রাতিরিক্ত খাবার খাওয়ার ইচ্ছেও থাকে না ২-৩ টে কাঠ বাদাম খেয়ে নিলে। আর তাই ওজন বেড়ে যাওয়ার সম্ভাবনাও কম থাকে।

• কাঠ বাদামে রয়েছে ভিটামিন ই। ভিটামিন ই ত্বক সুন্দর রাখে আর মুখে বয়সের ছাপ পড়ে না।

• কোলেস্টেরল লেভেলও ঠিক রাখতে পারে কাঠ বাদাম। এর মধ্যে থাকে ম্যাগনেসিয়াম, পটাশিয়াম, প্রোটিন। যার ফলে হার্টকেও সুস্থ রাখে কাঠ বাদাম।

• হজমের জন্যও কাঠ বাদামের জুড়ি মেলা ভার। এতে যে ফাইবার থাকে, তা হজম শক্তি বাড়ায় এবং কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে।

হৃদরোগের সম্ভাবনাকে কমায় কাঠ বাদাম:-

কাঠ বাদামে থাকা মোনো-আনস্যাচুরেটেড ফ্যাটি অ্যাসিড, অ্যান্টি-অক্সিড্যান্ট ও পটাশিয়াম হার্টকে সুস্থ রাখতে সাহায্য করে ও হৃদরোগের সম্ভাবনাকে কমায়। কাঠ বাদামের খোসায় প্রচুর পরিমাণে ফ্ল্যাভোনয়েড থাকে যা ভিটামিন ই-র সাথে ধমনীতে রক্ত চলাচলে সাহায্য করে ও প্রদাহকে কমায়। কাঠ বাদামে থাকা ফলিক অ্যাসিড রক্তবাহে ফ্যাট জমতে বাধা দেয় ফলে আমাদের হৃদরোগের সম্ভাবনা অনেকাংশে হ্রাস পায়।

ডায়াবেটিস কমাতে কাঠ বাদামের জুড়ি নেই:-

কাঠ বাদামের গ্লাইসেমিক ইন্ডেক্স কম, তাছাড়া কাঠ বাদামে কার্বোহাইড্রেটের পরিমাণও অনেক কম থাকে। কাঠ বাদামে থাকা প্রচুর ম্যাগনেশিয়াম আমাদের রক্তে শর্করার মাত্রা কমাতে সাহায্য করে ও ইনসুলিনকে নিয়ন্ত্রণে রাখে। ফলে নিয়ম করে কাঠ বাদাম খাওয়া অনেকসময় ডায়াবেটিসের ওষুধ খাবার থেকেও বেশী উপকার দেয়।

রক্তচাপ কমায় কাঠ বাদাম:-

কাঠ বাদামে থাকা পটাসিয়াম ও ম্যাগনেশিয়াম আমাদের রক্তচাপকে কমায় এবং রক্তে সোডিয়ামের মাত্রাকে কমায়। এছাড়া রক্তচাপের অনিয়ন্ত্রিত ওঠানামাকে কাঠ বাদাম নিয়ন্ত্রণ করে। উচ্চ রক্তচাপযেহেতু হার্ট অ্যাটাকের সম্ভাবনাকে বাড়ায় তাই নিয়ম করে কাঠ বাদাম খেলে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে থাকে ও হৃদরোগের সম্ভাবনাকে কমায়।

মতামত