হাসানুজ্জামান মোল্যার কবিতা: “করোনা না এলে”

        করোনা না এলে

✍️ হাসানুজ্জামান মোল্যা

করোনা না এলে
অমানুষ দের মুখোশ খুলে যেত না,
করোনা না এলে
কেবা স্বজন, কেবা দুর্জন জানা হত না।

করোনা না এলে
অফলাইনের মানুষকে অনলাইনে দেখা যেত না,
করোনা না এলে
প্রযুক্তি ভীতুরা প্রযুক্তি প্রেমী হত না।

করোনা না এলে
অক্সিজেন এর প্রয়োজনীয়তা উপলব্ধি হত না,
করোনা না এলে
পালস অক্সিমিটার এর খোঁজ পড়ত না।

করোনা না এলে
মাস্কের এত গুণ তা প্রকাশ পেত না,
করোনা না এলে
সোশ্যাল ডিস্ট্যান্সিং সবার মুখে শোনা যেত না।

করোনা না এলে
পিপিই আর পিপিপি এর পার্থক্য জানা হত না,
করোনা না এলে
হ্যান্ড স্যানিটাইজার ও হ্যান্ড রাব এত আপন হত না।

করোনা না এলে
লাশ দাফনে বাধা দেওয়ার খবর শোনা যেত না,
করোনা না এলে
স্বজনবিহীন লাশ অনাদরে পড়ে থাকত না।

করোনা না এলে
পুলিশ কে অচ্ছুৎ লাশ দাফন করতে হত না,
করোনা না এলে
পুলিশ যে মানুষের বন্ধু তা বোঝা যেত না।

করোনা না এলে
ফ্রন্ট লাইন যোদ্ধাদের ত্যাগ দেখা হত না,
করোনা না এলে
চতুর্দিকে মানবতার ডাক শুনা যেত না।

করোনা না এলে
অখন্ড অবসর মিলত না,
করোনা না এলে
সময় দেয় না এমন অভিযোগ ঘুঁচত না।

করোনা না এলে
কবিতা লেখা হত না,
করোনা না এলে
সুপ্ত প্রতিভার প্রকাশ পেত না।

কবিতাটি লিখেছেন: হাসানুজ্জামান মোল্যা, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার, সাতকানিয়া সার্কেল, চট্টগ্রাম।

মতামত